রাখে আল্লাহ মারে কে (একটি ভিন্নধর্মী র‍্যাপ সঙ্গীত)

একদা তিন বন্ধু মিলে ভোর বেলাতে
কথা বলছিলাম আমরা হাটতে হাটতে
জীবনটা শুষ্ক ভীষণ পানি নাই দিলে
ব্যতিক্রমী কিছু করব তিনজন মিলে

হঠাৎ দুষ্টু বুদ্ধি চাপল আমার মাথায়
বললাম চুরি করব এবার পাড়ায় পাড়ায়
বাকি দু’জন চমকে উঠল বলে কি শালায়
মুচকি হেসে বললাম শুধু আবার জিগায়

তখনই শুরু হল চুরি অভিযান
স্থান রহমত চাচার বাড়ির পিছনের বাগান
মোটা এক আম গাছে উঠি তিনজনে
চাচা আসতে পারে সেটা কারো নাই মনে

হঠাৎ করে নিচ থেকে শোনা গেল হাঁক
ভয়ে আমাদের হতে যাচ্ছে হার্ট-অ্যাটাক
নিচে হাতে লাঠি নিয়ে রহমত চাচা
মনে মনে বললাম – চাচা আপন প্রান বাঁচা

ভয়ে আমরা তিনজন তখন ঘামছি গরমে
হঠাৎ মাথায় বুদ্ধি চাপল দৈবক্রমে
গাছ থেকে লাফ দিলাম পাশের ডোবায়
কাদাপানি ছিটকে পড়ল রহমত চাচার গায়

তাড়াতাড়ি ছুটলেন তিনি পুকুর ঘাটে
এই ফাঁকে আমরা তিনজন পড়লাম কেটে
এ যাত্রা বেঁচে গেলাম আল্লাহ্‌র দয়ায়
সাথে আল্লাহ্‌ থাকলে মোদের কোন শালা ঠেকায়

রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…

 

কয়দিন পরে উদয় হল চুরির নেশা
জায়গা নির্ধারনটাই হল আসল সমস্যা
কেউ বলে নারিকেল বাগান, কেউ বলে কলা
আমি বলি এবার আমরা যাবো বেলতলা

বেল তলায় গিয়ে দেখি বেল নাই গাছে
মনে পড়ল পাশের পাড়ায় বেল গাছ আছে
সেথায় গিয়ে দাড়াতেই বেল পড়ল মাথায়
চিৎকার দিয়ে বসে পড়লাম গাছের গোড়ায়

বন্ধুরা ছুটে এল বাঁচাতে আমায়
হাত দিয়ে ম্যাসাজ করছে আমার মাথায়
গাছের মালিক ঘরে শুয়ে ছবি দেখছিলেন
চিৎকার শুনে শোয়া থেকে লাফ দিয়ে উঠলেন

হাতে দাও নিয়ে ছুটলেন নূর আহমদ কাকা
আজকে নাকি পালন করবেন চোরের আকীকা
হাটতেও পারছিনা কারন মাথায় যন্ত্রনা
বন্ধুরাও আমাকে ছেড়ে যেতে চাইল না

নূর আহমদ কাকা ছুটে আসছেন তাড়াতাড়ি
হায় হায় এবার বুঝি ভেঙ্গে গেল হাটের হাঁড়ি
একজনের পিছন থেকে চেপে ধরলেন কলার
নিজের বেল নিজের মাথায় পড়ল এবার

অজ্ঞান হয়ে পড়ে গেলেন মাথায় হাত দিয়ে
কোনমতে আমরা তিনজন গেলাম পালিয়ে
এবারও বেঁচেছি আল্লাহ্‌র দয়াতে
আল্লাহ্‌ থাকলে এই ধরায় কেউ পারবে না ঠেকাতে

রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…

 

এভাবে কেটে যায় বেশ কিছু দিন
চুরির নেশা মাথাচাড়া দিল দিন দিন
চুরি করা অনেক কঠিন গত দুই বারে
সেটা বুঝে গেছি আমরা হাড়ে হাড়ে

এটাই হবে আমাদের সর্বশেষ চুরি
চুরি করে শেরাটনে খাবো ডালপুরি
এই যাত্রায় কোনমতে বাঁচতে পারলে হয়
কানে ধরে বলব আমরা চুরি আর নয়

ভ্যালেন্টাইনসডে উপলক্ষে চুরি করলাম ফুল
কেউ বুঝবেনা ভেবে আমরা করেছিলাম ভুল
তার হাতে ফুলগুলো যখন দিলাম তুলে
ফুলগুলো সে ছুড়ে মারলো আমারি গালে

চোর বলে সম্বোধন করল যখন আমায়
হা-করে তাকানো ছাড়া রইলোনা উপায়
যখন বুঝলাম ওদেরই বাড়ি ফুল এগুলো
প্রেম, প্রেমিকা, ফুল – সবই পানিতে গেলো

পাশে দাড়ানো ছোকরাকে বললাম আবুল
টাকা নিয়ে দিলি মোরে চুরি করা ফুল
তাড়াতাড়ি আবুলকে দিলাম ভাগিয়ে
এসব দেখে লজ্জা পেয়ে গেল সেই মেয়ে

ধরা পড়ার হাত থেকে বাঁচিনিতো কম
লজ্জা পাওয়ার হাত থেকে বাঁচলাম প্রথম
অশেষ কৃতজ্ঞ রইলাম তাঁর কাছে আবার
আল্লাহ্‌র উপর ভরসা করা উচিত সবার

রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…
রাখে আল্লাহ্‌ মারে কে…

 

বিঃ দ্রঃ ইন্টারমিডিয়েটে থাকতে এইসব হাবিজাবি রচনা করেছিলাম, সেগুলোই এখন আপনাদের গেলাচ্ছি, বিস্বাদ লাগলে কিছু করার নেই, দুঃখিত।

লেখক সম্পর্কে

শিমুল

নেশা এবং পেশা গ্রাফিক ডিজাইন, সেই সাথে ফটোগ্রাফি, ট্রাভেলিং, নতুন নতুন টেকনোলজি শেখা ইত্যাদি। অর্জিত জ্ঞানকে সবার সাথে শেয়ার করার প্ল্যাটফর্ম হিসেবে এই ওয়েবসাইট।

মন্তব্য করুন

Recent Posts

Recent Comments

Archives

Categories

Meta